ছড়া | চিন্তাসূত্র
৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ১৮ নভেম্বর, ২০১৭ | ভোর ৫:৫১

হেমন্তের গান ও অন্যান্য ॥ শুভাশিস দাশ

হৈমন্তী ছড়িয়ে আছে শিশির কণা হেমন্তেরই ধানে, আকাশ বাতাস মুখর হলো নবান্নেরই গানে! ব্যস্ত কৃষক উঠবে ফসল উঠোনজুড়ে খুশি, ছড়িয়ে সোনা হাসছে কে গো হেমন্ত উর্বশী! হেমন্তের গান ক্ষেতজুড়ে যে ভালোবাসা কৃষাণ বৌয়ের হাসি নবান্ন দিন ডাকছে কাছে আনন্দেতে ভাসি! হেমন্ত দিন চিন্তা কিসের রোদ ঝিলমিল ভোর এমন দিনে থাকিস নে আর বন্ধ...

পশুবাহী ও অন্যান্য ॥ মানসুর মুজাম্মিল

মনে পড়ে মনে পড়ে মনে পড়ে মনে পড়ে মনে পড়ে গ্রাম আমার গ্রামটা তবে কত কিলোগ্রাম- রয়েছে যে মনে প্রতি ক্ষণে ক্ষণে। মনে পড়ে মনে পড়ে মনে পড়ে মাকে বুকের ভেতরে আমি রেখেছি যে যাকে। মনে পড়ে মনে পড়ে রোদ ঝিকিমিকি পার্বণে দিলো দাদা চকচকে সিকি। মনে পড়ে মনে পড়ে পূর্ণিমা রাত আম পড়ে বেশি বেশি-খুললো বরাত । মনে পড়ে মনে পড়ে ঘাস-ফুল-নদী পেটপুরে...

স্বপ্নগুলো ও অন্যান্য ॥ স্বপন শর্মা

স্বপ্নগুলো শুধুই চেয়ে থাকি; সূর্যিমামা উঠবে জেগে জাগবে কখন পাখি? তাদের সাথে আমিও তখন করব ডাকাডাকি। থাকবে তখন আমার হাতে খেলনা সকল থাকবে সাথে খেলব হেসে খেলে, পাখনা মেলে অনেক দূরে যাবো সাথি পেলে। মেঘের মতন আকাশজুড়ে হাওয়ার তালে অনেক দূরে মাঠের পরে মাঠে, মনের সুখে ভাসবে তরী মেঘনা নদীর ঘাটে। উঠবে যখন সূর্য্যিমামা আমার...

চিহ্ন ও অন্যান্য ॥ হরিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়

মায়ের মতো শরতের স্পর্শ নিয়ে এসো ধরার মাঝে ফসল কাটা শেষ হয়েছে নেইকো চাষি কাজে। গোলা ভরা ধান আছে তাই হাতের কাছে আহার প্রৌঢ় সাজে তোমায় দেখি নেইকো ফুলের বাহার। জৌলুস নেই, সাজগোজও নেই মায়ের মতো তুমি নবান্নতেই চিনতে পারি আমার জন্মভূমি। চিহ্ন গরম দিয়ে গ্রীষ্মকে বৃষ্টি দিয়ে বর্ষাকে তেমন তোমার চিহ্ন কোথায়? ডাকবো...

নবান্ন ও অন্যান্য ॥ চন্দনকৃষ্ণ পাল

নতুন ঋতু শিউলী ফোটা শেষের পথে স্থলপদ্মও শেষ, ভোর বিহানের হাওয়ার মাঝে একটু শীতের রেশ। সবজি ক্ষেতে সবুজ চারার একটু নড়াচড়া, রাতের বেলা হালকা শিশির ঘাসের গায়ে পড়া। পিঁপড়ে সারি খাবার মুখে শীতের আয়োজনে, রোদেও যেন তীব্রতা নেই স্তব্ধতা আজ বনে। নদীর জলে টান ধরেছে কাশের ফোটাও শেষ, কালচে সবুজ মাখলো গায়ে আমার বাংলাদেশ। শরৎ...

যেন ও অন্যান্য ॥ জনি হোসেন কাব্য

  আগের মতো বিলে ঝিলে শ্বেত বলাকার সারি নেই, ‘ভোদড় নাচন’ কিংবা ‘মামার বাড়ি’ নেই। সিলেবাসে মনের মতো পড়া নেই, দাদুর মুখে ঘুমপাড়ানি ছড়া নেই। মাঠের পিঠে উদাস বিকেলবেলা নেই, দুষ্টুমিতে রকমারি খেলা নেই। নাটাই হাতে আকাশছোঁয়া ঘুড়ি নেই, জোছনামাখা ফর্সা চাঁদের বুড়ি নেই। পাখির নাচন শালিক নাচে কলিগ পেয়ে ময়নার গায়ে...

পথ চাওয়া ও অন্যান্য ॥ চাণক্য বাড়ৈ

কিশোর বয়স কিশোর বয়স, তোমায় আমি ফেলে এলাম বলে আধখানা বুক, স্নিগ্ধ চিবুক ভাসিয়ে দিচ্ছ জলে কিশোর বয়স কিশোর বয়স আমার কথা শোনো তোমায় আমি দেইনি ফাঁকি, দোষ ছিল না কোনো। দুচোখ তোমার আটকে ছিল বায়োস্কোপের নলে ‘জীবন’ আমায় ডাক দিল যে, তাই তো এলাম চলে কিশোর বয়স এখন তুমি অনেক অনেক দূর তোমার জন্য বুকের ভেতর প্রচণ্ড ভাঙচুর আজও...

প্রিয় তপন বাগচী ॥ আশরাফুজ্জামান বাবু

ছড়ার লাঙল টেনে যিনি খোকা খুকুর মন চাষে, আজকে সে ছড়া-চাষীর ঠেকলো বয়স পঞ্চাশে। হাজার বছর বেঁচে থাকুন একটি দোয়াই মাগছি, প্রিয় মানুষ, প্রিয় লেখক প্রিয় তপন বাগচী।

বড় স্যার ও অন্যান্য ॥ অদ্বৈত মারুত

আর কোরো না ভুলটা চারদিকেতে বইছে বাতাস উল্টা নাকি? গা-টা কেমন ম্যাচম্যাচে ভাই ঘরেই থাকি। আমায় নিয়ে ভাবনা আমার তাই বলি ভাই লাগলো আগুন কোথাও না কি বুঝি না ছাই… ঠিক ছিল তো তোমার দাওয়া ঘি-টা গাওয়া লুটেপুটে খাওয়া ছিল পরম পাওয়া। দাদা, হচ্ছে এসব কী যে! আগলে দুয়ার রাখলে পুড়ে যাবেই যাবে নিজে! রৌদ্রতাপে গুমোট হাওয়া বইছে...

স্বপ্ন ভঙ্গ ও অন্যান্য ॥ শারমিন সুলতানা রীনা

স্বপ্ন ভঙ্গ এক কিশোরীর দু’চোখজুড়ে স্বপ্ন ছিল কত মেঘের মতো আকাশটাতে ভাসতো অবিরত। ভর দুপুরে ছুটে যেত প্রজাপতির পিছু শাসনবারণ রোদ ও বৃষ্টি মানতো না সে কিছু। বাতাস হয়ে বইতো সে ধানের ক্ষেতের গায়ে রিনিক ঝিনিক ছন্দে নুপুর বাজতো দুটি পায়ে। আনন্দতে হেসেখেলে কাটছিল দিন তারও পোড়া কপাল সইলো না এত সুখের ভারও। বধূ সেজে...

webcams Etudiantes Live Jasmin Forester Theme