Chintasutra: web mag of Bengali literature, culture & Arts
৭ শ্রাবণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২২ জুলাই, ২০১৭ ইং | দুপুর ১২:২৪


বিষ্ণু দে: একালের চোখে-৩॥ কাজী মহম্মদ আশরাফ

॥৩॥ বিষ্ণু দে গবেষক বেগম আকতার কামাল লিখেছেন ‘আলেখ্য’ কাব্যের রচনাকাল ১৯৫২-৫৮। কথাটা পুরোপুরি ঠিক না। এ কাব্যের প্রথম কবিতাটির নাম ‘মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়’; রচনাকাল ১৯৪৪। এর পরে আছে বিখ্যাত কবিতা ‘জন্মাষ্টমী’, রচনাকাল ১৯৪৭। এর পরেও ১৯৪৬, ৪৭ ও ৪৮ সালে লেখা কবিতা আছে অনেকগুলো। এর পরেরগুলো তারিখবিহীন। সম্ভবত...


নির্বাচিত লেখা



প্রবন্ধ

গল্প

কবিতা

সাক্ষাৎকার

অনুবাদ

টুকিটাকি

খোলা জানালা

ধারাবাহিক

ছড়া

শৈলী

সংস্কৃতি



সম্পাদকীয়

  • জ্ঞান-বিজ্ঞান-ইতিহাস চর্চা-গবেষণার মতো সাহিত্য কখনো সর্বজনীন নয়; কবিতা তো নয়-ই। বিষয়টি প্রকৃতপক্ষে বিশেষ শ্রেণীর জন্য রচিত। সাহিত্যও বিশেষ শ্রেণীর ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গ রচনা করেন। পৃথিবীতে সর্বজনীন বলে আসলেই কি কিছু আছে? সর্বজনীনতা মূলত একধরনের শুভঙ্করের ফাঁকি মাত্র। সমাজের-রাষ্ট্রের কোনো কিছুই সর্বজনীন নয়। কৃষি কাজ থেকে শুরু করে, কামার-কুমুরের কাজ, পিয়ন চাপরাশির কাজ থেকে শুরু জজ-উকিল-সচিব, এমপি-মন্ত্রী, রাজা-বাদশা—প্রত্যেকেরই কাজের নিজস্ব অঞ্চল রয়েছে। প্রত্যেকের কাজেরই রয়েছে বিশেষ উপকারভোগী শ্রেণী। যখন যার যে বিশেষ বস্তু বা জিনিসের প্রয়োজন, তখন সে বিশেষ ব্স্তুটির সেবা নেয়। এক শ্রেণীর মানুষ অন্য শ্রেণীর রুচিকে গ্রহণ করে না, আর এক শ্রেণীর বিশ্বাস, আচার-অনুষ্ঠানকে অন্য শ্রেণীর কাছে অন্তসারশূন্য-অযাচার বলেই মনে হয়। তবে কখনো-কখনো দায়ে পড়ে কিংবা বাধ্য হয়ে ক্ষমতাবানদের কোনো কোনো রীতি বা নিয়ম মেনে চলে। অথবা মনে মনে না মানলেও চুপ থাকে, প্রতিবাদ করে না। ঠিক এরকমই সাহিত্যও সর্বজনীন নয়। একান্তই শ্রেণী বিশেষের; বিশেষত কবিতা। আর যদি প্রেমের কবিতা, তাহলে তো আরও বিশেষ শ্রেণী-বয়সের জন্য। সেই প্রেমের কবিতা নিয়ে এই সংখ্যায় থাকছে এসময়ের প্রধান কবিদের প্রেমের কবিতা। থাকছে অন্যান্য নিয়মিত বিভাগের সঙ্গে নতুন সময়ের নতুন গল্প।
কাজী নাসির মামুন-এর তৃতীয় কাব্যগ্রন্থ কাক তার ভোরের কোকিল
প্ল্যাটফর্ম প্রকাশিত বই পড়ুন

ফেসবুকে চিন্তাসূত্র

অ্যালেক্সা র‌্যাংকিং