কবিতা | চিন্তাসূত্র
৩ মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৬ জানুয়ারি, ২০১৯ | রাত ১১:৩২

কনফেশন ও অন্যান্য ॥ ফারহানা রহমান

ঠিকানাটা ভুল ছিল ঠিকানাটা ভুল ছিল তোমার দরজায় গিয়ে পৌঁছাতে পারেনি অথচ চিঠিটি কাগজ কলম দিয়ে লেখা ভোরের হাওয়ার মতো অচেনা সুবাস মেখে ছিল মনে হয় দূর কোন অতীতের ছবি কুয়াশায় ঢেকে আছে শব্দগুলো ঝাপসা হয়ে গেছে পুরাতন কোন শহরের প্রতিচ্ছায়া যেন কাছে থাকা সব স্মৃতি বিবর্ণ বাতাস গায়ে মেখে তোমাকে অনেক করে খুঁজে খুঁজে একটি...

জঙ্গলে-তাঁবুতে ॥ তুষার কবির

জঙ্গলে বেড়াতে এলে জঙ্গলে বেড়াতে এলে আমি আসলে তোমার শরীরেই নিঃশব্দে ভ্রমণ করি! জঙ্গলের বুকঝিম্ পথে হেঁটে গিয়ে আমি খুঁজে পাই দূরের ছড়ানো ভাঁটফুল পাতাঝরা আমলকীবন— কোথাও যেনবা ভেসে আসে তিতিরের ডাক ঝোপ থেকে উঠে আসে ময়ূরীর মনোলগ আর জলডাহুকীর গান— জঙ্গলে বেড়াতে এসে তোমার শরীর জুড়ে লেখা হতে থাকে আরণ্যিক নোটবুক! জঙ্গলের...

বিকলাঙ্গের গান ॥ স.ম. শামসুল আলম

বিকলাঙ্গের গান টের পাই, কিছু নীল কষ্ট বিকলাঙ্গের গান হৃদয়ে বাজে অবুঝ অর্কেস্ট্রা তোলে ঝঙ্কার করুণ, অন্ধকার হাতে ম্লানমুখ আলো আমি দাহ্য কী অদাহ্য বুঝি না, এখনো ভস্ম হতে বাকি উড়ে যাওয়ার আগে পুড়ে যাওয়া নিয়ম ভেতরে কী যেন পোড়ে! আমাকে জড়িয়ে ধরো অনেক অনেক দিন আগের কথা একদিন স্রোতস্বিনী নদী থেকে কিছু জল গড়িয়ে পড়লো...

অরব অনুভূতিমালা ॥ হাসান ইমাম

শীতার্ত পাথরের মতো ঠাণ্ডা জমাট ভোর চেয়ে আছে খোলা চোখে— যেন কিছু আগে জলে ডুব দিয়ে উঠেছে শিশিরে ভিজে একসা ঘাস গাছেদের এলোমেলো মাথাভর্তি কুয়াশা—জটাধারী সন্ন্যাসী বলে ভ্রম হয় জলের শরীর থেকে অবিকল ভাপাপিঠার মতো ধোঁয়া ওঠে—শব্দহীন বলকে বলকে মনে হয়, উত্তাপও বুঝি পাওয়া যাবে অনুরূপ; চারদিকে তবু সূর্যের আলোর স্পর্শের...

মানুষ এবং মানুষদিগের বচনসমূহ ॥ শিমুল মাহমুদ

ইহা গদ্য, পদ্য অথবা আখ্যাননির্ভর কোনো রচনা নহে। ইহা নহে সাধু অথবা চলিত বাকপ্রথা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। ইহা হয় অক্ষমতাজনিত লিখনকৌশল, যাহা কেবল কবিপ্রাণ অহঙ্কারীগণ পাঠের প্রয়াস রাখেন। ০১. আমার সবচেয়ে বড় অপরাধ আমি আর সবার মতো সাধারণ নই। প্রকৃতপ্রস্তাবে এহেন বিশ্বাস প্রতিজন লেখক চেতনে অবচেতনে প্রকাশ্যে অপ্রকাশ্যে...

আমার পুত্রের প্রতি ॥ তুহিন তৌহিদ

তোমার জন্মের মধ্য দিয়ে আমি পুনর্বার জন্ম নিলাম। সূর্যরশ্মির আভা ছড়িয়ে পড়লো এই তামাম জগতে, ক্রমে সকল তমসা কেটে গেলো, বৃষ্টিস্নাত বর্ষাভোরে গাছের সবুজ পাতাটির মতো হেসে উঠলাম—এতটাই প্রতিভা তোমার! বদলে দেওয়ার এক আশ্চর্য ক্ষমতা নিয়ে তুমি এসেছ। আমার বুক ভেদ করে বেরিয়ে পড়ছে কুণ্ডলীপাকানো যত সর্প, যত হতাশার বিষ মোমের...

অভিবাসীর গান ॥ আমিনুল ইসলাম

হে জননী, বিষুবরেখায় হেলান দিয়ে চোখ মেলে দেখো— নদীর মতো বয়ে চলেছি আমি কাঁধে নিয়ে নিরন্তর কর্মপ্রবাহের জল আমার সাথে আছ তুমিও যতদূর গঙ্গা, ততদূর গঙ্গারিডি যতদূর উড়ি আমি, ততদূর বিস্তৃত হও তুমিও। আলেকজান্ডার যা পারেনি যা পারেনি সুলতান সুলেমান কিংবা রানি ভিক্টোরিয়া, আমি তাই করে চলেছি এখন কোনো মহাদেশেই আর অনুপস্থিত...

অরণ্য ॥ গোলাম কিবরিয়া পিনু

কোন্ বনে এসে পড়লাম— যেখানে বুনোশুয়োর ও খাটাশের রাজত্ব চলে শজারুর হাঁটাহাঁটি ও ভুজঙ্গ উড়ে .                 কাঠবিড়ালী পালায় পালায় ডানাওয়ালা ঈগল ঈর্ষা নিয়ে দূর থেকে আসে হিংসা-বিষ নিয়ে দংশন করে কীট আকাশেও কুড়ুলে ও পেঁজামেঘ নাচে এইখানে আমি .              —দুমড়েমুচড়ে পড়ি! আমলকি বনে— অশ্বরক্ষকেরা ঘোড়ার বদলে নিজেরাই...

আখড়া ও আগুন ॥ ফকির ইলিয়াস

কাতারবন্দি বৃক্ষগুলো নত হচ্ছে। নত হচ্ছে পাখিসম্প্রদায়। আর— মানুষের হৈ-হুল্লোড়ে কাঁপছে হৈমন্তি হাওয়া। কেউ ধ্বনি তোলে ডাকছে তার প্রভুর নাম। যাদের কোনো প্রভু নেই, কিংবা যারা এর আগে মেনে নেয়নি কালের দাসত্ব, তারাও নত হচ্ছে মাটির কাছে, কেউ কেউ ছড়িয়ে দিচ্ছে অগ্নি-অনুরাগ। মাটির সানকিতে খুব ভোরবেলা, যারা সাজিয়ে...

সিরাজী সিরিজ ॥ সাইফুল্লাহ মাহমুদ দুলাল

সিরাজী সিরিজ-১ ‘পাঠ করলেই ঘোষক নয়; লাশ হলেই শহীদ নয়’ এই চরণ আমাকে নিয়ে যায় ইতিহাসের বাঁকে। হুইস্কি কিংবা হাজার সিরাজী চাই না। চাই একজন হাবিবুল্লাহ সিরাজী। বাংলা চাই, বাংলা খাই। বৃটেনের লন্ডন, কানাডার লন্ডন চাই না। ঢাকাই আমাদের মা। সিরাজী সিরিজ-২ হাবীবুল্লাহ সিরাজী ঘুমিয়ে যাবার পর মাতাল শব্দগুলো ৭০৩-এ শুকনো...