সোনা রোদে রঙ ছড়িয়ে ॥ শাহানারা ঝরনা | চিন্তাসূত্র
২৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ | রাত ১০:৪২

সোনা রোদে রঙ ছড়িয়ে ॥ শাহানারা ঝরনা

মায়ের ছোঁয়া
ধূসররঙের পথ চলেছে একটু এঁকেবেঁকে
বনের মাঝে কুটুম পাখি ডাকছে থেকে থেকে
রোদের আলোয় শিশিরকণা হাসছে মিটিমিটি
হলুদ গাঁদা লিখছে কাকে মায়ার খামে চিঠি!

সরষে ফুলে মাঠ ভরেছে হাসছে সবুজ গাঁও
রঙিন পালে যাচ্ছে ভেসে পরান মাঝির নাও
খেজুর গাছে রসের হাঁড়ি শীত বাতাসে দোল
আলতা বধূর রাঙা পায়ে আনন্দী হিল্লোল ।

বেতের ঝোপে লুকোচুরি খেলছে কিশোর বেলা
হাতছানিতে ডাক দিয়ে যায় বউচি পুতুল খেলা
ইচ্ছে করে ফিরে পেতে হারানো দিনগুলি
বেথুল খাওয়ার সেই-যে প্রহর কেমন করে ভুলি!

ছয়টি ঋতুর আদর নিয়ে মুখর সোনার দেশ
স্বপ্ন তিলক বুকে এঁকে আমরা আছি বেশ
অপর বেলায় বাজে যখন স্মৃতি-বাঁশির সুর
চোখের পাতায় আবেশ জাগায় বিষণ্ন রোদ্দুর।

শীতের পিঠে শিকেয় রেখে মা যখনি ডাকে
ছন্নছাড়া হৃদয় তখন বন্দি কি হায় থাকে!
চোখে নাচে আয়না বিকেল শেকল ছেঁড়ে মন
হই উদাসী, এলোমেলো কারণ-অকারণ।

এমনি করে চলছি ছুটে চলার যে নেই শেষ
সকল কিছুর মাঝেই তো পাই মায়ের ছোঁয়ার রেশ।

বিজয় এলে
ঝরাপাতা ঝরতে পারে তাই তো ঝরে
একলা বেলায় হাজার স্মৃতি মনে পড়ে
সবাই কি আর কষ্ট কথার হিসাব রাখে ?
ইচ্ছে হলেই খেয়াল খুশির খেলায় ডাকে।

যেদিক তাকাই সব মনে হয় আলোয় ভরা
ফুল ফসলে নিত্য হাসে বসুন্ধরা
মুগ্ধ হৃদয় আবেশ ছড়ায় ঐক্যতানে
অন্তরেতে স্বপ্ন জাগে বিজয় গানে ।

বিজয় মানে আমরা সবাই ফুলেল সাথি
সুখ ভরা মন, মানবতার মালাগাঁথি
সামনে এগোই, যাই পেরিয়ে সকল বাধা
একসাথে হয় সাম্যবাদের সুরটি সাধা!

দুঃখী যাঁরা তাদের চোখেও স্বপ্ন আঁকি
শুদ্ধ বোধের মুক্ত আকাশ মেলে রাখি
মন চলে যায় শহর ছেড়ে দূরের গাঁয়ে
দিই পরিয়ে বিজয় নূপুর খুকুর পায়ে।

খুকু আমার বুদ্ধিমতী সেও তো জানে!
বিজয় নামের ফুল পেয়েছি রক্ত-দানে
বিজয় এলেই যায় ভিজে তাই স্মৃতির খাতা
ভুলবো না তো কেউ কখনো সে শোকগাথা!

সোনা রোদে রঙ ছড়িয়ে
সোনা রোদের রঙ ছড়িয়ে রোজ সকালে সূর্য ওঠে
দোয়েল পাখির গানের সুরে ফুলকলিরা নিত্য ফোটে
বারোমাসি খবর নিয়ে ঋতুর মেয়ে নায়র আসে
তার ছোঁয়াতে খুনসুটিতে মেঘ বালিকা মিষ্টি হাসে।

অরুণ-বরুণ কিরণ-মলার স্বপ্নে মাতে ফুলকুমারি
কিশোরবেলার গল্পগাথা কেউ কি আহা ভুলতে পারি!
বনবনানী পাহাড়জুড়ে গাছগাছালির শ্যামল ছায়া
জোনাক জ্বলা রাতের মতোই ভীষণ সুখে বাড়ায় মায়া

তাল সুপুরির ডালে বসে বন পাপিয়া যখন ডাকে
তখন খোকা মন হারিয়ে,অবাক চোখে উদাস থাকে
কূলছপানো ভাবনাগুলো নদীর মতো অবাধ ছোটে
কুটুম পাখির গানের সুরে বুবু হাসে রাঙা ঠোঁটে!

মন্তব্য

চিন্তাসূত্রে প্রকাশিত কোনও লেখা পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।


কোন মন্তব্য নাই.

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মন্তব্য লিখুন