অনবদ্য ঠোঁট ও অন্যান্য ॥ শামস আরেফিন | চিন্তাসূত্র
১ কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ | সকাল ৭:৩৩

অনবদ্য ঠোঁট ও অন্যান্য ॥ শামস আরেফিন

স্মৃতি খেয়ে বাঁচি
কুয়াশার তাঁতে বোনা সময়ের শিশিরে ভেজা সবুজ মনে
তারার নূপুরে জোছনা বাজিয়ো না ভালোবাসার হাতছানি
রাস্তার ফকিরের মতো দিয়া যান দিয়া যান বলে
ভালোবাসা ভিক্ষে চেয়ে স্বপ্ন ঝোলে তেঁতুল তলে।
ও ঋষি, ভালোবাসা না পেয়ে এভাবে কাতরাও?
ডাঙায় ওঠা জিয়ান মাছের মতো নিজেকে আছড়াও।

প্রেম আছে বলেই স্তন নামক পাখির ছানাকে আদর
আর কাম আছে বলে ভালোবাসায় বিছানায় যাওয়া
এ হৃদয় জেগে বুকের ওপর বসে মনের ঘুম ভাঙাতে
আজ সে চাঁদের জোছনায় উসকায় দেহের জোয়ার
ভাটার বিরহে যে না ভাসে, সে কি জানে সমুদ্র কাকে বলে?

জানো না সাধনা মানে—
প্রেমিকার অপেক্ষায় থেকে ধৈর্যের হিমালয়ে আরোহণ
বিরহী বরফ গলে আবেগের নোনতা স্রোতে শব্দের চাষ
আলোর জমিনে বোনা আবেগী বীজের অঙ্কুরোদগম
আর পাখির মতো স্মৃতির দানা খুঁটেখুঁটে শান্তির খোঁজ
অন্তত কিছুটা সুখস্মৃতি না খেয়ে সভ্যতা বাঁচে কিভাবে?

ক্লান্ত
বিরহের ঘুম ভাঙানো মশারূপী আফ্রোদিতিকে মেরো না!
কুমড়ো ফুলের কলির মতো নিজেকে গুটিয়ে রেখো না আর
প্রতিটি দীর্ঘশ্বাসে ঝরাও শীতের শিশিরের মতো শূন্যতা
কুয়াশামাখা স্বপ্নে আবেগের কোলবালিশ ধরতে চাও না।

বিরহী কাঠঠোকরা তোমার মন খুঁড়েখুঁড়ে ক্লান্ত
তবু কমলা-স্ফীত বুকে সাড়া দিতে পারো না।
মন নিয়ে চারগুটি খেলে ক্লান্ত হতে চাও বলো?
কচিডাব দেহখানা এইবার মেলে দাও কলাপাতার মতো
বাকবাকুম স্বরে ডাকছে দেখো কামনামাখা মুহূর্ত।

ধনেপাতা, তোর ঘ্রাণ কখন পরিপূরক হবে নিঃস্বাদ জীবনে—
আর কত সিদ্ধধানের মতো আবেগও সিদ্ধ হবে অপেক্ষায়?
ভালোবাসার পুকুরে তেলাপিয়া মাছের মতো লুকোচুরি?
এখনো নাড়ার আগুন পোহায় জমাটবাঁধা মন ও কুয়াশা—
তাই প্রেমের জালে ধরা দিয়ে দেখ—কবি কেমন জেলে?

অনবদ্য ঠোঁট
তৃষ্ণার্ত ঠোঁট, যে দয়িতার চুমু বা বিরহে পোড়েনি
জীবিকার কষাঘাতে পকেটের স্বপ্ন তার চুরি হয়
জানে না সে কল্পনায় জরুরি মনের খোরাক, বন্ধুত্বে দরকার বিনিময়
যেমন রঙধনু চুড়িতে আকাশ সাজে বৃষ্টির পর আর চাঁদের জন্য রাত।

তবু ঠকতে ঠকতে প্রকৃতি শিখেছে ত্যাগই বড়
হৃদয় মরুভূমিতে আনন্দ চাষের ক্ষমতা কার আছে?
কার আছে প্রেমের আগাছাকে লালন করার মমতা?
আগামীর ফসল দ্বিধাহীনভাবে নিঃশেষ করার সাহস?
রমণীকে প্রেমকাবা করে হৃদয়াকাশে জড়তা উড়ানো?
আর জীবন নিয়ে চারগুটি খেলে জীবনকেই হারানোর চেষ্টা?

চোখ তো কেড়ে নিতে পারে না স্বপ্ন দেখার অধিকার
জোছনার আধিপত্য নক্ষত্র অস্বীকার করে না
তাই চাঁদ জোছনায় আবেগের জোয়ার উসকে দিলে
নিয়মের খাঁচা ভেঙে প্রেম-বৃষ্টিতে কে না ভিজে?

চিন্তাসূত্রে প্রকাশিত কোনও লেখা পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।


কোন মন্তব্য নাই.

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মন্তব্য লিখুন