উসকানিমূলক পোস্ট মুছে দেবে ফেসবুক | চিন্তাসূত্র
১ কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ | সকাল ৮:১১

উসকানিমূলক পোস্ট মুছে দেবে ফেসবুক

ডেস্ক রিপোর্ট
এখন থেকে ভুয়া ও উস্কানিমূলক পোস্ট দিলে সেগুলো ফেসবুক নিজে থেকে মুছে দেবে। বুধবার সিলিকন ভ্যালির প্রধান কার্যালয়ে এই নতুন নীতির ঘোষণা দিয়েছেন ফেসবুকের এক মুখ্পাত্র। সম্প্রতি শ্রীলঙ্কায় পরীক্ষামূলকভাবে এই প্রযুক্তি প্রয়োগ করে সাফল্য মিলেছে বলেও ফেসবুক দাবি করেছে। কয়েক মাসের মধ্যে সারাবিশ্বেই এই প্রযুক্তি প্রয়োগ করা হবে।

সংস্থার ওই মুখপাত্র বলেন, আমরা একটি নীতি পরিবর্তনের দিকে এগোচ্ছি। এই পদ্ধতিতে ভার্চুয়াল দুনিয়ায় ছড়ানো বিদ্বেষ, হিংসা, গুজব ভুল তথ্যে বাস্তব জগতে উত্তেজনা বা হিংসা ছড়াতে পারে এমন পোস্ট সরিয়ে দেওয়া হবে।’ ফলে পোস্টের মালিক বা অন্য কেউ সেগুলো আর দেখতে পারবে না।

ভুয়া ও উসকানিমূলক পোস্ট শনাক্তির ব্যাপারে ফেসবুক জানায়, এর জন্য স্থানীয় প্রশাসন, স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাসহ নানা স্তরের লোকজনের সঙ্গে সনম্বয় করা হচ্ছে। সারা বিশ্বেই নেটওয়ার্ক আরও বাড়ানো হচ্ছে। পাশাপাশি নিজেদের নজরদারি পদ্ধতিও আরও জোরদার করা হচ্ছে।

কিছু দিন আগেই শ্রীলঙ্কায় সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজব ছড়ায়, বৌদ্ধদের হত্যার উদ্দেশ্যে মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষজন খাবারে বিষ মিশিয়ে বিক্রি করছে। তার জেরে বিভিন্ন জায়গায় জাতিগত হিংসা ছড়িয়ে পড়ে। এরপরই ফেসবুক শ্রীলঙ্কায় এই নীতি প্রয়োগ করে। এর অংশ হিসেবে উসকানিমূলক পোস্ট মুছে দিতে শুরু করেছে।

এতদিন পর্যন্ত সাধারণভাবে কোনও পোস্ট ফেসবুক কর্তৃপক্ষ নিজে থেকে মুছে দিতো না। কোনও পোস্ট নিয়ে কেউ ‘রিপোর্ট’ করলে অর্থাৎ অভিযোগ জানালে তবেই সেগুলো সরিয়ে বা মুছে দিতো। নতুন পদ্ধতিতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ নিজেই মুছে দেবে এই ধরনের আপত্তিকর পোস্ট।

ফেসবুক, হোয়াট্সঅ্যাপে গুজব এবং তার জেরে গণপিটুনির মতো ঘটনায় সম্প্রতি ভারতেও উদ্বেগ ছড়িয়েছে বিভিন্ন মহলে। ছেলেধরা গুজবে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে গণপিটুনির ঘটনা সামনে এসেছে। ছেলেধরা সন্দেহে মহারাষ্ট্রে পাঁচ ভিখারীকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। তারপরই কেন্দ্রের পক্ষ থেকে মার্ক জ়াকারবার্গেরই মেসেজিং অ্যাপ হোয়াট্সঅ্যাপের বিরুদ্ধে কড়া চিঠি পাঠানো হয়। তার উত্তরেও সংস্থা জানিয়েছিল, এই ধরনের গুজব রুখতে ব্যবস্থা গ্রহণ করছে কর্তৃপক্ষ। আপত্তিকর পোস্ট মুছে দেওয়ার নয়া নীতির প্রয়োগ তারই অঙ্গ বলে মনে করছেন অনেকে। সূত্র: ইন্টারন্টে

চিন্তাসূত্রে প্রকাশিত কোনও লেখা পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।


কোন মন্তব্য নাই.

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মন্তব্য লিখুন