অতীত অথবা স্মৃতিতর্পণ ॥ হেলাল উদ্দিন হৃদয় | চিন্তাসূত্র
৫ কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ২০ অক্টোবর, ২০১৮ | দুপুর ১২:৫৭

অতীত অথবা স্মৃতিতর্পণ ॥ হেলাল উদ্দিন হৃদয়

জার্মান কবি, নাট্যকার বের্টোল্ট ব্রেখট প্রশ্ন তুলেছিলেন, ‘বর্তমান বলে সত্যি কি কিছু হয়?’ এর পরপরই নিজেই উত্তর দিয়েছেন, ‘মাঝে মাঝে মনে হয়, সবই অতীত। যে মুহূর্তে একটি মুহূর্তকে ধরতে যাই, সঙ্গে সঙ্গে সেটা হয়ে যায় অতীত।’

আসলেই। যে যা-ই বলুন না কেন, অতীত বা স্মৃতিই মানুষের একমাত্র সঙ্গী, যা কখনোই মানুষকে ছেড়ে যায় না। একইসঙ্গে ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যেতে সঠিক দিকনির্দেশনা দিয়ে থাকে। অনেকেই হয়তো বলবেন, ফেলে আসা দিন নিয়ে এত স্মৃতিচারণ করার কিছু নেই! তারা এভাবে একটু ভাবুন তো। ধরুন, আপনার সব স্মৃতি কেড়ে নেওয়া হলো কিংবা আপনার জীবনের সব অতীত একদম মুছে ফেলা হলো, কিন্তু আপনি বুঝতে পারছেন যে, আপনার একটা অতীত ছিল। এমতাবস্থায় আপনার পক্ষে স্বাভাবিক জীবনযাপন করা কতটা সম্ভব হবে? আমি হলে নির্ঘাত মরে যাব অথবা উন্মাদ হয়ে যাব!

ইতিহাসের শিক্ষায় যদি কেউ দীক্ষিত হতে পারে, তবে তার ভবিষ্যতের পথচলা অনেকটাই মসৃণ হয়ে যায়। ইতিহাস, তা-ও তো ওই অতীতেরই অনুষঙ্গ। অতএব মৃত্যুর মতোই চিরন্তন এক সময়ের নাম অতীত।

চিন্তাসূত্রে প্রকাশিত কোনও লেখা পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।


কোন মন্তব্য নাই.

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মন্তব্য লিখুন