পাখি ও অন্যান্য ॥ গোলাম মোর্শেদ চন্দন | চিন্তাসূত্র
৮ আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | রাত ১২:৫৩

পাখি ও অন্যান্য ॥ গোলাম মোর্শেদ চন্দন

এক নদীর-ই ধারা
ঢেউ খেলিয়া ছলাৎছলাৎ, চলছে ভাঙা চাড়া
এমন করেই চলছে দেখো, এক নদীর-ই ধারা
আমরা দুজন দুই হব না, হব না পথহারা॥

এক্কা দোক্কা কানামাছি, খেলব দুজন মিলে
উড়ব দুজন নীলাকাশে, মনের ডানা খুলে
হাওয়ায় হাওয়ায় ভেসে ভেসে, দেখব ভাঙাগড়া॥

মৃত্যু এসে কেড়ে নিলে, পাব না তো ভয়
যুগলবন্দি হয়ে দুজন, ভয়কে করব জয়
নীল জোছনায় লাল হয়েও হব না অধরা॥

নীরব প্রেম
ভুলে গেছি ভুলে যাই ভুলে ভরা সব
যা কিছু আমার ছিল পুরোটা নীরব॥

নীরব প্রেমের গল্প, ছিল কিছু অল্প
হয়নি বলা যে তা, তা থৈ থৈ ধা
সেই গল্পের ভুল, ঘরের কোনের ঝুল
নাড়াচ্ছে দ্যোদুল, পুরোটা অযথা।
তবুও আমার আমি, আসল এবং দামি
না বুঝে করে প্রসব॥

আমার বেদনা বুঝে, থেকেছো দুচোখ বুজে
তাই বলি ধুর ধুর।
দূরত্বটা যত দূরে, সেটাই হৃদয়পুর
তোমাতেই ভরপুর॥
আমার বেদনা থাক, হোক না তা অবাক
অবাক করা হৃদয় ভরা আছে যে কলোবর॥

পাখি
পাখি একা একা উড়ে গেল, আপন ঠিকানায়
সে আমারে রেখে গেল, এ কোন যন্ত্রনায়॥

গোছানো ঘর, হইলরে পর, মহাকালের ঘরে
হেরে গিয়ে জিতে গেলে, ফিরলে না এপারে
ও ঘর তোমায় সুখ দিলেও, ছুটবে আপন মোহনায়॥
পাখি একা একা উড়ে গেল, আপন ঠিকানায়॥

এভাবে আসতে চাই না পাখি, আমার হবে দেরি
ওপার থেকে ডেকো না আর, কষ্ট করি ফেরি
তোমার কষ্ট বুকে নিয়ে, নিয়ে দেব কত দায়॥
পাখি একা একা উড়ে গেল, আপন ঠিকানায়॥

চিন্তাসূত্রে প্রকাশিত কোনও লেখা পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ।

কোন মন্তব্য নাই.

লেখাটি সম্পর্কে আপনার মন্তব্য লিখুন